সব

আমি নোবেলের দাবিদার নই : ইমরান খান

নিজস্ব প্রতিবেদক | মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০১৯ | 434 বার পড়া হয়েছে
আমি নোবেলের দাবিদার নই : ইমরান খান

ফোরসাইড নিউজ২৪.কম: দুই দেশের মধ্যে যে যুদ্ধ পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছিল, তা প্রায় থেমে গেছে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের এক সিদ্ধান্তে। পুরোটা হয়তো থেমে যায়নি, কিন্তু পরিস্থিতি অনেকটাই পাল্টে গেছে।
যেখানে বলা হচ্ছিল, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর আরেকটি ভয়ঙ্কর যুদ্ধ শুরু হতে যাচ্ছে, সেখানে একেবারে ভিন্ন পরিস্থিতি। আর যেহেতু ইমরান খানের সিদ্ধান্তে পরিস্থিতি ইতিবাচক দিকে ঘুরে গেছে, তাই ইমরানকে নোবেল শান্তি পুরস্কার দেয়ার দাবি উঠে বিভিন্ন জায়গা থেকে। বিষয়টি নিয়ে পাকিস্তানের পার্লামেন্টেও প্রস্তাব আনা হয়েছে।
বিষয়টি আরো বড় হওয়ার আগে নিজেই রাশ টেনে ধরেন ইমরান খান। টুইটারে তিনি বলেন, ‘আমি নই, যিনি শান্তি প্রক্রিয়ার প্রথম পদক্ষেপটি নিয়েছিলেন, তিনিই নোবেল শান্তি পুরস্কার পাওয়ার দাবিদার।’
গত ২৭ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের যুদ্ধবিমানগুলোকে ধাওয়া করতে গিয়ে পাকিস্তানের আজাদ কাশ্মিরে বিধ্বস্ত হয় ভারতের দুটি মিগ ২১। পাকিস্তানি বাহিনীর হাতে ধরা পড়েন মিগ ২১-এর পাইলট অভিনন্দন বর্তমান। প্রথমে ভারত বিমান বিধ্বস্ত হওয়া ও পাইলট আটক দুটি বিষয়েই স্বীকার না করে উড়িয়ে দেয়। কিন্তু পরে তার ভিডিও প্রকাশ করা হলে তা মেনে নিতে বাধ্য হয় ভারত।
এরপর ঘুরে যায় পরিস্থিতির মোড়। যেখানে পাকিস্তানকে পুরোপুরি ধ্বংস করে দেয়ার দাবি চলছিল, তা পাল্টে দাবি করা হয়, অভিনন্দনকে মুক্তি দেয়া হোক। ভারত এ দাবি করলেও তারা নিজেরাই এতে আস্থা রাখতে পারছিল না। তিন বাহিনীর প্রধানদের দিয়ে বৈঠকের প্রস্তুতিতে এরই প্রমাণ মিলেছিল। তারা সেভাবেই প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছিল।
কিন্তু হঠাৎ করে আবারো বাতাস পাল্টে যায়। কারণ পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ভারতীয় পাইলট অভিনন্দনকে কোনো শর্ত ছাড়াই মুক্তির ঘোষণা দেন। যথারীতি পরদিন তাকে ওয়াগা সীমান্ত দিয়ে ভারতে পাঠিয়ে দেয়া হয়। ইমরান খানের এই প্রাজ্ঞ পদক্ষেপে দু’দেশের কূটনৈতিক পরিস্থিতি অনেকটাই শান্ত হয়ে পড়ে। উধাও হয়ে যায় যুদ্ধ-যুদ্ধ আবহও। শুধু পাকিস্তান নয়, ভারত থেকেও যথেষ্ট প্রশংসা পান ইমরান খান।
পাকিস্তানের দাবি, অভিনন্দন বর্তমানকে ভারতে ফেরত পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়ে কাশ্মীর ইস্যু এবং উপত্যকায় শান্তির পথে অগ্রদূতের ভূমিকা নিয়েছেন ইমরান। দিল্লি-ইসলামাবাদের উত্তেজনা কমাতে শান্তির পথে প্রথম পদক্ষেপ নিয়েছেন তিনিই। এখান থেকেই উঠে আসে ইমরান খানকে নোবেল শান্তি পুরস্কার দেয়া হোক। গত শনিবার বিষয়টি পাকিস্তান ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলি বা পার্লামেন্টেও তোলা হয়।
এরপর ইমরান টুইটারে লিখেন, আমি নোবেল শান্তি পুরস্কারের দাবিদার নই। তিনি যোগ্য, যিনি কাশ্মিরের বাসিন্দাদের ইচ্ছানুসারে কাশ্মির বিতর্কের সমাধানের চেষ্টা করেছেন এবং এই উপমহাদেশে শান্তি ও উন্নয়নের পথে প্রথম পদক্ষেপ নিয়েছেন।’ এ কথা বলে তিনি আসলে পাকিস্তানের তথ্যমন্ত্রী ফওয়াদ চৌধুরিকেই ইঙ্গিত করেছেন। কারণ অভিনন্দনকে ভারতে ফেরানোর জন্য পাক সংসদে প্রস্তাব এনেছিলেন এ ফওয়াদ চৌধুরিই।
তবে ভারত দাবি করছে, উদারতা দেখিয়ে নয়, বরং তাদের কূটনৈতিক চাপের মুখে পড়েই পাকিস্তান অভিনন্দনকে ফেরত দিতে বাধ্য হয়েছে।

 



 

সূত্র : খালিজ টাইমস

Facebook Comments

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

কাতার ট্রানজিট যাত্রীদের জন্যে সু-খবর

১৯ নভেম্বর ২০১৮ | 5026 বার পড়া হয়েছে

কাতারের বাইরে কাতার ভিসা কেন্দ্র।

০২ অক্টোবর ২০১৮ | 1825 বার পড়া হয়েছে

কাতারে সি পি এল টুর্নামেন্ট আয়োজন

২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ | 1186 বার পড়া হয়েছে

নুজুম লাল চা সাহিত্য আড্ডা

০৮ ডিসেম্বর ২০১৮ | 1026 বার পড়া হয়েছে

কাতারে আজ নতুন করে ৬৪ জন কোভিড-১৯ সনাক্ত

১৫ মার্চ ২০২০ | 971 বার পড়া হয়েছে

বহুমাত্রিক জীবন

১০ জুলাই ২০১৮ | 832 বার পড়া হয়েছে

কাতারের আকাশে পৃথীবির সবচেয়ে বড় ঘুড়ি

২৬ ডিসেম্বর ২০১৮ | 815 বার পড়া হয়েছে

কাতারে স্বপ্নবাজ উদ্যোগতাদের মিলন মেলা

১৪ ডিসেম্বর ২০১৯ | 741 বার পড়া হয়েছে

কাতারে ফুল উৎসব

০৯ ডিসেম্বর ২০১৮ | 723 বার পড়া হয়েছে

এ বিভাগের আরও খবর

উপদেষ্টা সম্পাদক

হাফেজ মাওলানা সাহাদাত হোসাইন

মোহাম্মদ নুরে আলম

হাফেজ মাওলানা আব্দুল হাসিব চৌধুরী

লোকমান আহমেদ

প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক

চৌধুরী হাসান মাহমুদ

প্রধান সম্পাদক

গোলাম রব্বানী

নির্বাহী সম্পাদক

হাফিজুর রহমান নাহিদ

বার্তা সম্পাদক

তাজ উদ্দিন আহমাদ

বিভাগীয় সম্পাদক

শাহ মাসুম খাদেম

সিএম হাসান

সম্পাদনা সহযোগী

ফয়েজুল ইসলাম চৌধুরী

আশিকুর রহমান

এনামুল হাসান চৌধুরী

যোগাযোগ: উম আল ধম রোড, মাইজার, আল রাইয়্যান, কাতার। ফোন: +974.77664095, ই-মেইল: foursidenews@gmail.com

all right reserved

design and development by: webnewsdesign.com